শাবি ভিসিকে অপসারণ না করা পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসিবরোধী শিক্ষক আন্দোলন নতুন মাত্রা পেয়েছে৷ গতকাল বুধবার ভিসির পক্ষ অবলম্বনকারী ছাত্রশিবিরকর্মীরা সরকারবিরোধী শিক্ষকদের জিহ্বা কেটে ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়িত করার হুমকি দেয়৷ এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ সরকারবিরোধী শিক্ষকরা ভিসি ড. মুসলেহ উদ্দিন আহমদকে অপসারণ না করা পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছেন৷

ভিসির পদত্যাগের দাবি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারজন ডিন গতকাল চ্যান্সেলর বরাবর আবেদন করেছেন৷ অন্যদিকে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গতকালও ভিসি অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে৷ গতকাল সকাল থেকে ক্যাম্পাসে অবস্থান নিয়ে শিবির নেতাকর্মীরা সরকারবিরোধী শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লvেগান দিয়ে মিছিল ও সমাবেশ করে৷ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, ড. জয়নাল আবেদিন, ড. আখতারুল ইসলাম, ড. রেজাই করিম খন্দকার, ড. সুশান্ত কুমার দাসসহ সরকারবিরোধী শিক্ষকদের কক্ষে প্রবেশ করে ক্লাস নেয়ার জন্য হুমকি দেয়৷ শিক্ষকরা ক্লাস না নিলে তাদের জিহ্বা কেটে ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়িত করা হবে বলে শাসায় শিবিরকর্মীরা৷ এ ঘটনার প্রতিবাদে দুপুর সোয়া ১২টায় শিক্ষকরা কালোব্যাজ ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার জামিল আহমদের সঙ্গে দেখা করে সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন৷ রেজিস্ট্রার জামিল আহমেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে যায়যায়দিনকে জানান, কিছু ছাত্র কয়েকজন শিক্ষককে গালাগাল ও হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ পেয়েছি৷ শিক্ষকরা আমাকে মৌখিকভাবে বিষয়টি জানিয়েছেন৷ আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো৷ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষকদের আহ্বায়ক ড. আখতারুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, প্রক্টরিয়াল কমিটির নিষ্ক্রিয়তায় ও উপাচাের্যর ইন্ধনে ছাত্রশিবিরকর্মীরা শিক্ষকসহ দু’জন ডিনকে চরমভাবে অপমানিত করেছে এবং হুমকি দিয়েছে৷ ভিসি অপসারিত না হলে শিক্ষকরা সব শিক্ষা কার্যক্রম হতে বিরত থাকবেন বলে বিবৃতিতে বলা হয়৷ শিক্ষকদের হুমকি দেয়ার ঘটনায় ক্যাম্পাসে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া হয়েছে৷ ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান রাজু এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, শিক্ষক হত্যার রিহাের্সল হিসেবে এই হুমকি দেয়া হয়েছে৷ সমাজতান্ত্রকি ছাত্রফ্রন্ট শাবি শাখার আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল মামুন যায়যায়দিনকে জানান, প্রশাসনের সহায়তাই শিবির আজ এই অপকর্ম করার সাহস দেখিয়েছে৷ শিবির সভাপতি এটিএম শরিফুল আমিন সুমন অবশ্য শিক্ষকদের হুমকি দেয়ার কথা অস্বীকার করেছেন৷ যায়যায়দিনকে তিনি জানান, ক্লাস নেয়ার জন্য আমরা শিক্ষকদের কাছে হাত জোড় করে অনুরোধ করেছি৷ এদিকে স্কুল অফ লাইফ সায়েন্সের ডিন প্রফেসর ড. হাবিবুল আহসান, স্কুল অফ অ্যাপ্লাইড সায়েন্সের ডিন প্রফেসর ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, স্কুল অফ এগ্রিকালচার অ্যান্ড মিনারেল সায়েন্সের ডিন প্রফেসর ড. মুহম্মদ জয়নাল আবেদীন, স্কুল অফ সোশাল সায়েন্সের ডিন ড. রেজাই করিম খন্দকার গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর ও রাষ্ট্রপতি ড. ইয়াজউদ্দিন আহম্ম`ে বরাবর বর্তমান ভিসিকে প্রত্যাহার করে বিশ্ববিদ্যালয় রক্ষা করার আবেদন জানিয়েছেন৷ ভিসি অপসারণের দাবিতে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গতকাল বুধবার মদিনা মাের্কট থেকে সকাল সাড়ে ৯টায় মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়৷ পুলিশের বাধা পেয়ে সেখানে ১ ঘণ্টা সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে মিছিল ও সমাবেশ করেন সংগ্রাম পরিষদের নেতাকর্মীরা৷ অন্যদিকে ক্লাস শুরুর দাবিতে ছাত্রীরা গতকাল ভিসি বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে৷ একই দাবিতে সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিভাগীয় প্রধানের কাছে স্মারকলিপি দিয়ে তিন দিনের সময় বেঁধে দেয়৷ ছাত্র শিবির গতকাল শাবি প্রেস ক্লাবে দুপুরে এক সংবাদ সম্মjেbে অচলাবস্থা নিরসনে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন, চ্যান্সেলর ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছে৷ সূত্রঃ যাযাদি

Advertisements

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে।

%d bloggers like this: