হবিগঞ্জ-আজমিরীগঞ্জ সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হয়নি ৩৫ বছরেও

প্রয়োজনীয় অর্থাভাব, প্রাকৃতিক প্রতিকূলতাসহ বিভিন্ন কারণে স্বাধীনতার ৩৫ বছর পরও জেলা সদরের সাথে আজমিরীগঞ্জ উপজেলা সদরের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত না হওয়ায় জনসাধারণকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বর্ষাকালে নদীবন্দর আজমিরীগঞ্জ এর সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম ইঞ্জিন নৌকা। তদানীন্তন পাকিস্তান  আমলে এই সড়কে অনিয়মিতভাবে বাস সার্ভিস চালু থাকলেও কালক্রমে তা বন্ধ হয়ে যায়। গত ৫৯ বছরে এই সড়কটি উন্নয়নের নামে বিপুল পরিমাণ অর্থ ও গম অপচয় কিংবা লোপাট হয়েছে কিন্তু সড়কটির ঈঞ্ঝিত উন্নয়ন হয়নি।
হবিগঞ্জ-বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ সড়কের দূরত্ব ২২ মাইল। ইতিমধ্যে ১২ মাইল সড়ক পাকা হওয়ায় হবিগঞ্জ-বানিয়াচং অংশ অলওয়েদার রোড হিসাবে চালু হয়েছে। কিন্তু উপযুক্ত রক্ষণাবেক্ষণ ও বর্ষাকালে ঢেউয়ের আঘাতে ভাঙ্গনের কারণে বিভিন্ন স্থানে সড়কটি বর্তমানে যানবাহন চলাচলে অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিনেও ১০ মাইল দীর্ঘ বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ অংশে সড়কের আশানুরূপ উন্নতি হয়নি। প্রায় প্রতিবছরই সড়কে যে মাটি ভরাট করা হয় তার অধিকাংশই বর্ষাকালে ঢেউয়ের আঘাতে পানিতে বিলীন হয়ে যায়। পরিকল্পিত প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ ব্যতীত হাওড় এলাকার কোন কোন স্থানে এই সড়কের অস্তিত্ব রক্ষা করা দুঃসাধ্য ব্যাপার।

প্রায় ৮ বছর পূর্বে সড়ক ও জনপথ বিভাগ আড়াই কোটি টাকা ব্যয়ে বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ সড়ক উন্নয়নের একটি প্রকল্প গ্রহণ করে। প্রকল্পের অধীনে সড়কের ঝিংড়ী নদী হতে জলসুখা পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার রাস্তা মাটি ভরাট এবং বন্যার কবল হতে রৰার জন্য সিসি ব্লক ফেলার ব্যবস্থা করা হয়। একই সময়ে সড়কের ৮ম ও ৯ম কিলোমিটারে ১০০ ফুট দীর্ঘ বেইলী ব্রিজের ২টি পাকা পিলার নির্মিত হলেও প্রয়োজনীয় বেইলী না পাওয়ায় ব্রিজটি চালু করা যায়নি। একই কারণে ঝিংড়ী নদীর উপর নির্মাণাধীন ২৮০ ফুট দীর্ঘ বেইলী ব্রিজটি নির্মাণের কাজও শেষ হয়নি। বানিয়াচঙ্গের চিলাপাঞ্জার নিকটে সড়কের ১ম কিলোমিটারে নির্মাণাধীন সেতুর উভয় প্রান্তে পিলার নির্মিত হলের বেইলী না পাওয়ায় ব্রিজ নির্মাণের কাজ অসম্পূর্ণ রয়েছে। চলতি অর্থবছরে এ সড়ক উন্নয়নের জন্য কোন অর্থ বরাদ্দ করা হয়নি।

উল্লেখ্যযে, গত বছর হবিহগঞ্জ-বানিয়াচং সড়ক উন্নয়নের জন্য বিশ্ব ব্যাংক ১৭ কোটি টাকা ব্যয়ের একটি প্রকল্প গ্রহণ করে। কিন্তু টেন্ডারে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো উর্ধ্ব দরে সমঝোতার মাধ্যমে কাজ ভাগ-বাটোয়ারা করার খবর প্রকাশ হয়ে পড়লে দরপত্র বাতিল করে দেয়া হয়।
সূত্রঃ http://ittefaq.com/get.php?d=06/09/17/w/n_zxmzky

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: