দিরাই হাসপাতালে বেশীর ভাগ রোগীকে বারান্দায় থাকতে

অনিয়ম অবহেলাসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত দিরাই উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা ব্যাহত হচ্ছে। ফলে উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভায় ৩ লৰ মানুষ চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ডাক্তার ঔষধ আর শয্যা সংখ্যার সংকটের কারণে এ হাসপাতালে প্রতিদিন শত শত রোগী বিনা চিকিৎসায় বাড়ী ফেরত যাচ্ছে। যে কজন ডাক্তার দিরাই হাসপাতালে কর্মরত আছেন তারাও প্রাইভেট চিকিৎসা নিয়ে সারাৰণ ব্যাসত্দ থাকেন। হাসপাতালে ১০ জন ডাক্তার পদ থাকলেও কর্মরত আছেন মাত্র ৪ জন। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নিজেই প্রাইভেট প্র্যাকটিস নিয়ে ব্যসত্দ থাকার কারণে অন্য ডাক্তারদের উপর তাঁর কোন খবরদারি চলে না বলে অভিযোগ রয়েছে। হাসপাতালটি ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হলেও বাসত্দবে শয্যা সংখ্যা ২২টি। ফলে হাসপাতালের বারান্দা ফ্লোরে থেকে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। দিরাই উপজেলা হাসপাতালের পরিবেশ অত্যনত্দ নোংরা। হাসপাতালটি নিয়মিত পরিষ্কার করা হয় না। এখানে বিশুদ্ধ পানীয় জলের তীব্র সংকট লেগেই আছে। একটি নলকূপ বেশীরভাগ সময় অকেজো থাকে। লো-ভোল্টেজের ফলে দীর্ঘদিন যাবৎ এক্সরে মেশিন অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। হাসপাতালের ৮০ লৰ টাকা মূল্যের ২টি এম্বুলেন্স নষ্ট। তা মেরামতের জন্য কতর্ৃপৰের কোন উদ্যোগ নেই।

সূত্রঃ http://ittefaq.com/get.php?d=06/12/07/w/n_zvrrxq

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: