সিলেটে প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে মহাজোটে বিদ্রোহের আশঙ্কা

মনোনয়ন না পাওয়ার আশঙ্কায় সিলেটে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরিক কয়েকটি দলের মধ্যে বিদ্রোহের আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ আগে থেকে প্রার্থী সিলেকশন করে রাখায় এ ক্ষেত্রে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট৷
মনোনয়ন না পেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি কুনু মিয়া৷ মহাজোটের শরিক বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সিনিয়র নায়েবে আমির পৃন্সিপাল মাওলানা হাবিবুর রহমান সিলেট-৬ আসনে দাড়াবেন বলে জানিয়েছেন৷ সিলেট-৫ আসনে ফুলতলীর পীরের ছেলে মাওলানা হুছাম উদ্দিন চৌধুরীকে নমিনেশন দেয়ার খবরে জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে তীব্র ক্ষোভ৷ সব মিলিয়ে সিলেটের বিভিন্ন আসনে মনোনয়ন নিয়ে গভীর জটিলতায় পড়েছে মহাজোট৷
সিলেটের কয়েকটি আসনে মনোনয়ন লাভের জন্য আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও এলডিপির নেতাকর্মীরা পাচ বছর ধরেই তত্পর রয়েছেন৷ দলের জন্য অনেক ত্যাগও স্বীকার করেছেন তারা৷ মহাজোট না হলে তারা এককভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতেন৷ এখন এসব আসনে মহাজোটের ব্যানারে অনেকে উড়ে এসে জুড়ে বসে প্রার্থী হচ্ছেন- এটা তাদের মনোবেদনার মূল কারণ হয়ে দাড়িয়েছে৷
সিলেটের ছয়টি আসনের মধ্যে তিনটিতে প্রার্থিতা নিয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে শরিক দলগুলোর বিরোধ নেই৷ তবে সিলেট-৩ (দক্ষিণ সুরমা-ফেঞ্চুগঞ্জ), সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) এবং সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার) আসন নিয়ে জাতীয় পার্টি, এলডিপি, আনজুমানে আল ইসলাহ ও খেলাফত মজলিসের সঙ্গে চলছে চরম দরকষাকষি৷
সিলেট-৩ আসনে রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব মাহমুদ-উস-সামাদ চৌধুরী, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ আতিকুর রহমান ও এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল মুকিত খান প্রার্থিতা লাভের ব্যাপারে জোর লবি করছেন৷ এ তিন প্রার্থীই মহাজোটের মনোনয়ন পাচ্ছেন- এ রকম খবর দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে চাউর হয়েছে৷ এদের একজন মনোনয়ন পেলে বাকি দুজন বেকে বসতে পারেন বলে আভাস দিয়েছেন তাদের অনুসারীরা৷
সিলেট-৬ আসনে খেলাফত মজলিসের সিনিয়র নায়েবে আমির পৃন্সিপাল মাওলানা হাবীবুর রহমান মনোনয়ন পাবেন- এ রকম একটি প্রচারণা থাকলেও এখন এ আসনের মনোনয়ন নিয়েও ধূম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে৷ মাওলানা হাবীব ছাড়াও মহাজোটের প্রার্থী তালিকায় রয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও মানব উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক নূরুল ইসলাম নাহিদ, জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক, বৃটেন প্রবাসী সেলিম উদ্দিন ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আলহাজ কুনু মিয়া৷ এ ব্যাপারে কুনু মিয়া যায়যায়দিনকে জানিয়েছেন, তাকে মহাজোটের প্রার্থী করা না হলে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাড়াবেন৷ এ ব্যাপারে আগামীকাল সোমবার এক প্রেস কনফারেন্সে তিনি তার অবস্থান ব্যাখ্যা করবেন৷ মাওলানা হাবীব বলেছেন, সিলেট-৬ আসনে তিনি ছাড় দেবেন না৷
সিলেট-৫ আসনে আওয়ামী লীগের শক্তিশালী প্রার্থী হলেন সাবেক এমপি ও পূবালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার৷ এ আসনে মহাজোটের প্রার্থী করা হচ্ছে মাওলানা আবদুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলীর পুত্র মাওলানা হুছাম উদ্দিন চৌধুরীকে৷ এ নিয়ে জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ দেখা দিয়েছে৷ কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লুত্ফুর রহমান জানান, পরিবেশ-পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে আমরা মাওলানা হুছামকে প্রার্থী হিসেবে মেনে নেবো কি নেবো না৷ তবে আমি মনে করি, আওয়ামী লীগের দুই উপজেলা শাখার নেতাকর্মীরা কোনোভাবেই তাকে (হুছাম) প্রার্থী হিসেবে মানবে না৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=23745&issue=174&nav_id=1

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: