বালাগঞ্জে নিম্নমানের খাবার খেয়ে মানুষ অসুস্থ হচ্ছে

লাগঞ্জ উপজেলায় ভেজাল বিরোধী অভিযান স্থবির হয়ে পড়েছে। ফলে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে উঠেছে অসংখ্য নিম্নমানের খাদ্য কারখানা। বালাগঞ্জ সদর ও ওসমানীনগর থানায়। দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে ভেজাল বিরোধী অভিযান।
এ সুযোগে অসাধু ব্যবসায়ীরা বিক্রয় করছে নিম্নমানের খাবার ও পণ্য সামগ্রী। এসব নিম্নমানের খাদ্যসামগ্রী গ্রহণ করে পেটের পীড়া, আমাশয়সহ নানা রোগে ভুগছে সাধারণ মানুষ।

গত ১৬ ডিসেম্বর ওসমানীনগর থানার তাজপুর বাজারের একটি স্ন্যাক্স থেকে তাজপুর ইউনিয়নের দশহাল গ্রামের একজন নল্ডন প্রবাসী একটি ড্রিংক ক্রয় করে তার ছোট্ট ছেলেকে পান করালে সাথে সাথে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এসময় ড্রিংকের খালি প্যাকেটের গায়ে মেয়াদ দেখা যায় প্রায় দুই মাস আগেই মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছে। তারপর বিষয়টি ওসমানীনগর থানা পুলিশের হসত্দৰেপে শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে অভিযোগ রয়েছে যে ভেজালবিরোধী অভিযান বন্ধ থাকায় উপজেলার তাজপুর বাজার, দয়ামীর বাজার, গোয়ালাবাজর, বালাগঞ্জ সদর বাজার, বোয়ালজুর বাজার, শেরপুর বাজারে গড়ে উঠেছে অসংখ্য নিম্নমানের বিস্কুট ফ্যাক্টরি, চানাচুর, চিপসসহ ছোট ছেলে, মেয়েদের খাদ্য তালিকার খাবার সামগ্রী। তাছাড়া নিভৃত পলস্নীতে অবস্থিত বুরম্নঙ্গা বাজারে কয়েক বছর ধরে চলছে একটি নিম্ন মানের ভেজাল ‘শাহী ঘি’ কারখানা।

পচা ঘিয়ের তৈরী খাবার খেয়ে অনেকেই বিয়ের অনুষ্ঠান কিংবা শিরনি থেকে ফিরতে পারেনি। দেখা দেয় পেটের ব্যথা, আমাশয়সহ অসুস্থতা। অনুসন্ধানে জানা যায়, এই শাহী ঘি বালাগঞ্জ ওসমানীনগর ছাড়াও পাশর্্ববতর্ী থানা নবীগঞ্জ, রাজনগর, বিশ্বনাথ, দৰিণ সুরমা ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় এই পচা শাহী ঘি চালানো হয়ে থাকে।
সূত্রঃ http://www.ittefaq.com/get.php?d=07/01/09/w/n_zzutzx

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: