‘এতো কষ্ট জীবনেও করিনি’ অবরোধ স্পট : সিলেট রেল স্টেশন

‘এতো কষ্ট জীবনেও করিনি’- এ মন্তব্য ঢাকার আমবাগানের গৃহবধূ শিরিন ইসলামের৷ জরুরি পারিবারিক প্রয়োজনে শিরিন ও তার পরিবারের আরো চার সদস্য গত সোমবার ট্রেনযোগে সিলেটে আসেন৷ জানালেন, সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় তারা পারাবত ট্রেনযোগে সিলেটের উদ্দেশে রওনা দেন৷ পথে পথে বাধার কারণে প্রায় ১৪ ঘণ্টা পর রাত সাড়ে ১০টায় তারা সিলেট পৌছান৷ শিরিন জানান, অবরোধকারীরা পথে পথে ট্রেন চলাচলে বাধা দেয়৷ দুটি জায়গায় তারা ট্রেন আটক করে৷
মঙ্গলবার বেলা ১টায় সিলেট রেল স্টেশন এলাকায় আলাপ হয় শিরিনের সঙ্গে৷ সফরের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে তিনি বললেন, ট্রেন ভ্রমণে এবার অনেক কষ্ট হয়েছে৷ ভ্রমণ না করলে এ কষ্ট বোঝা যাবে না৷ অবরোধের সময় অসুস্থ মানুষ ট্রেনে উঠলে মারা যাবে- এটা তার উপলব্ধি৷
শিরিনের সফরসঙ্গী আবদুল গফুর জানালেন, অবরোধের সময় বাস চলে না৷ তাই ট্রেনে চলি৷ বললেন, অবরোধে জান শেষ৷ রাস্তায় মিছিল-মিটিং হয়৷ কারণে-অকারণে ট্রেন আটকানো হয়৷ তার ওপর ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রী থাকে৷ সব মিলিয়ে অবরোধের সময় যাত্রীদের দুর্ভোগের সীমা থাকে না৷ গতকালই (মঙ্গলবার) তাদের ঢাকায় ফিরে যাওয়ার কথা৷ এ লক্ষ্যে তারা দুপুর ১২টায় সিলেট রেল স্টেশনে আসেন৷ এখানে এসে জানতে পারলেন, পারাবত আজ ছাড়বে না৷ দূরপাল্লার বাস ছাড়ছে- এমন খবর পেয়ে বাস কাউন্টারে গেলে কর্তৃপক্ষ জানায়, বিকাল ৩টায় বাস ছাড়বে৷ তারপর শুরু হয় অপেক্ষা৷
অবরোধের কারণে আটকে পড়া নেত্রকোনার আবুল কাশেম মাহমুদ জানালেন, তিনদিন আগে সিলেটের গোলাপগঞ্জে তিনি তার এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন৷ কিন্তু অবরোধের কারণে আর বাড়ি ফিরতে পারেননি৷ তার মন্তব্য, গাড়ি চলবে শুইনা স্টেশনে আসলাম৷
দক্ষিণ সুরমার কদমতলী এলাকার আবু খালেদ জানায়, সে বালাগঞ্জের শেরপুরে একটি বিস্কিট ফ্যাক্টরিতে কাজ করে৷ অবরোধের কারেণ গত দু’দিন সে কর্মস্থলে যেতে পারেনি৷ গাড়ি চলবে শুনে গতকাল সকাল থেকে সে স্টেশন এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে থাকে৷
সিলেট রেল স্টেশনের এক কর্মকর্তা জানালেন, অবরোধের কারণে মানুষ অনেকটাই ট্রেননির্ভর হয়ে পড়েছে৷ সিলেট থেকে সবকয়টি ট্রেনের সিট ফিলাপ হয়ে যাচ্ছে৷ তবে অবরোধকারীদের বাধার কারণে ট্রেনের সময়সূচিতে গরমিল হচ্ছে বলে তিনি স্বীকার করেন৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=25387&issue=188&nav_id=5

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: