সিলেটের টার্গেট দ্বিতীয় স্থান অর্জন

ঢাকার শীর্ষস্থানীয় ক্লাবগুলোর মধ্যে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব, আবাহনী লিমিটেড, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ছাড়া আসন্ন পেশাদার ফুটবল লিগে (‘বি’ লিগ) এক থেকে চার নাম্বার পজিশনে যাওয়ার জোরালো দাবি এ পর্যন্ত অন্য কোনো ক্লাব করেনি৷ শীর্ষ চারটি ক্লাবই শিরোপা পাওয়ার আশাও ব্যক্ত করেছে৷ সত্যিকার অর্থে তাদের শিরোপা পাওয়ার যুক্তিও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য মনে হয়েছে৷ তবে ‘বি’ লিগে অংশ নিতে যাওয়া অন্য ক্লাবগুলো ভালো রেজাল্ট প্রত্যাশা করছে৷ ব্যতিক্রম শুধু সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থা৷ তারা দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হতে যাওয়া ‘বি’ লিগে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করতে চাইছে৷ তারা বলছে, ‘আমরা কমপক্ষে দ্বিতীয় স্থান ধরে রাখতে সচেষ্ট থাকবো৷’ এ জন্য তারা এতোদিন দল নিয়ে যথেষ্ট এক্সপেরিমেন্ট চালিয়েছে৷ গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে খেলোয়াড় রেজিস্ট্রেশনের কার্যক্রম শুরু হলেও তারা ধীর গতিতে এ কাজে হাত দিয়েছে৷ সব দলকেও তারা এতোদিন পর্যবেক্ষণ করেছে৷ এরপর দল গঠনের কাজে হাত দিয়েছে৷ তারা দ্বিতীয় স্থান পাওয়ার জন্য সর্বাধিক দুই কোটি টাকার বাজেট হাতে নিয়েছে৷ প্রয়োজনে এ বাজেট আরো বাড়ানো হবে বলে তাদের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন৷ তারা স্থানীয় ফুটবলারদেরই তাদের প্রধান অস্ত্র মনে করছে৷ পাশাপাশি ইংল্যান্ড থেকে ভালোমানের বিদেশি ফুটবলার আনারও চেষ্টা করছে৷ সিলেট থেকে যেসব তরুণ ইংল্যান্ড ও ইটালিতে স্থায়ীভাবে বসবাস করছে এবং সেখানকার স্থানীয় লিগে অংশ নিচ্ছে তাদের সিলেট দলে ভিড়িয়েছে বলে জানা গেছে৷ তাদের সঙ্গে কথাবার্তাও প্রায় চূড়ান্ত করেছে তারা৷ তাদের রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নিয়ে চলতি মাসের শেষ দিকে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) খেলোয়াড় চুক্তিপত্র জমা দেবে৷ সিলেট দলে কোনো সিনিয়র কিংবা জাতীয় তারকা ফুটবলার নেই৷ তারপরও তারা কেন দ্বিতীয় স্থান পাওয়ার আশা করছে- এ প্রসঙ্গে ক্লাবটির এ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অন্য দলগুলো প্রথম থেকেই সিনিয়র কিংবা জাতীয় তারকা ফুটবলারের দিকে ঝুকেছে৷ কিন্তু আমরা ওভাবে এগুতে চাইনি৷ তাদের নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই৷ আমরা বিশ্বাস করি যারা মাঠে ভালো খেলবে তারাই জিতবে৷ আমরা স্থানীয় এবং বিদেশিদের নিয়েই দ্বিতীয় স্থান অর্জন করবো বলে মনে করছি৷ ‘দলে সিনিয়র কিংবা জাতীয় তারকা থাকলেই দল শিরোপা জিতবে’- এ ধারণার কোনো ভিত্তি নেই বলে তিনি জানিয়েছেন৷ তাহলে এতো আত্মবিশ্বাস থাকতেও সিলেট কেন দ্বিতীয় স্থান পেতে চাইছে, শিরোপার আশা কেন করছে না- এ প্রশ্নের জবাবে এ কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা যতোটুকু পারবো ততোটুকুই আশা করছি৷ পরে শিরোপা পাওয়ার মতো দলের অবস্থান হলে তখন শিরোপা পাওয়ার আশাও প্রকাশ করবো৷’ সিলেট তাদের হোম ভেনু হিসেবে স্থানীয় সিলেট জেলা স্টেডিয়ামকেই বেছে নিয়েছে৷ তারা স্থানীয় ফুটবলারদের নিয়ে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে৷ বিদেশি ফুটবলাররা খেলার এক সপ্তাহ আগে দেশে আসবে বলে ওই কর্মকর্তা জানান৷

সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=25900&issue=192&nav_id=4

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: